সাকিবকে নিয়ে দারুন সুখবর !

নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার আগেই অনুশীলনে ফিরছেন সাকিব আল হাসান। সেপ্টেম্বরে বিকেএসপিতে শুরু করবেন ব্যক্তিগত অনুশীলন। নিশ্চিত করেছেন বিকেএসপির ক্রিকেট উপদেষ্টা নাজমুল আবেদীন ফাহিম।

বর্তমানে স্ব-পরিবারে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাডিসন শহরে আছেন সাকিব। তার দেশে ফেরার কথা চলতি মাসের শেষে।আধুনিক ক্রিকেটের সব ধরণের সুযোগ সুবিধা আছে বিকেএসপিতে। সাকিব নিজেও এই ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির সাবেক ছাত্র। তাই তো তাকে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা দেয়া হবে বলেই জানান ফাহিম।

জুয়াড়ির কাছ থেকে প্রস্তাব পাওয়ার তথ্য গোপন করায় সাকিব আল হাসানকে ক্রিকেট থেকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে আইসিসি৷ তবে দোষ স্বীকার করায় এক বছর পর, অর্থাৎ ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবরে ক্রিকেটে ফিরতে পারবেন সাকিব আল হাসান।

বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় তারকা সাকিব আল হাসানের বিরুদ্ধে শাস্তির বিষয়টি আইসিসি তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে। এক টুইটে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা বলেছে, জুয়াড়ির কাছ থেকে প্রস্তাব পাওয়ার বিষয়টি গোপন করে অন্যায় করেন সাকিব,

এ কারণে তার দু’ বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ থাকার কথা৷ অবশ্য দোষ স্বীকার করে নেয়ায় এক বছরের শাস্তি স্থগিত রাখা হয়।

আগামী ২৯ অক্টোবর আইসিসির দেয়া ১ বছরের নিষেধাজ্ঞা শেষ হবে সাকিবের। এরপরই ফেরার অনুমতি পাবেন ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। সে লক্ষ্যে বিকেএসপিতে নিজেকে প্রস্তুত করবেন, সাবেক এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

স্ত্রীকে সঙ্গে নেয়ার অনুমতি পেলেন ধোনি-কোহলিরা

করোনাভাইরাসের সতর্কতার কারণে ইংল্যান্ড সফরে স্ত্রী-সন্তান তথা পরিবারের সদস্যদের নিতে পারেনি পাকিস্তান ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়রা।

পুরোপুরি পরিবার থেকে আলাদা থেকেই প্রায় দুই মাসব্যাপী সফরটি খেলতে হচ্ছে বাবর আজম, সরফরাজ আহমেদদের।

একই শঙ্কা দেখা দিয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেটারদের মনেও। তাদের বেলায় স্ত্রী-সন্তানদের থেকে দূরে থাকার সময়টা হতো প্রায় ১৫০ দিন।

তবে সুখবর দিয়েছে আইপিএল আয়োজকরা। আগামী সেপ্টেম্বরে শুরু হতে যাওয়া আইপিএলে স্ত্রী-সন্তাদের সঙ্গে রাখতে পারবেন ক্রিকেটাররা।তবে এক্ষেত্রে মানতে হবে বেশ কিছু নিয়ম। করোনাভাইরাস বিস্তারের ঝুঁকি প্রশমিত করতে ‘স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি)’

শিরোনামে ১৬ পৃষ্ঠার বিশদ নিয়মকানুন প্রকাশ করেছে আয়োজকরা। সেখানে অনুমতি দেয়া হয়েছে স্ত্রীদের সঙ্গে নেয়ার। তবে কিছু নিয়ম মেনে।

আইপিএল খেলতে যাওয়ার আগে সকল খেলোয়াড় ও টিম স্টাফদের অন্তত ৫টি বাধ্যতামূলক কোভিড-১৯ পিসিআর টেস্ট করাতে হবে।

এসব টেস্ট করাতে হবে খেলোয়াড়দের পরিবারের সদস্যদেরও। তবে খেলোয়াড়দের সঙ্গে হোটেল থেকে মাঠে যেতে পারবেন না পরিবারের সদস্যরা। হোটেলে থেকেই উপভোগ করতে হবে ম্যাচ।কোনো খেলোয়াড় বা তার পরিবারের কেউ যদি আয়োজকদের বেঁধে দেয়া নিয়মকানুনের লংঘন করে, তাহলে সেই

খেলোয়াড়কে আইপিএলের কোড অব কন্টাক্ট রুলসের আওতায় যথাযথ শাস্তি দেয়া হবে।খেলোয়াড়রা যেসব নিয়ম মেনে টুর্নামেন্টে অংশ নেবে, তার সবগুলো প্রযোজ্য হবে পরিবারের সদস্যদের জন্যও।

আইপিএল দেখতে মাঠে যেতে পারবেন দর্শকরা!

ইউরোপে ফুটবল লিগগুলো শুরু হলেও করোনাভাইরাসের কারণে দর্শক প্রবেশের অনুমতি ছিল না স্টেডিয়ামে। কিন্তু ইংল্যান্ডে ক্রিকটে ফেরার পর সীমিত পরিসরে কিছু দর্শক প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়। তবে অবশ্যই মাঠে যারা প্রবেশ করেছেন, তাদের সবাইকে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখেই খেলা দেখতে হয়েছে।

করোনার কারণে ভারতে অনুষ্ঠিত হতে পারছে না এবারের আইপিএল। যে কারণে পুরো টুর্নামেন্টকে প্রবাসী করে দেয়া হচ্ছে। নিয়ে যাওয়া হচ্ছে আরব আমিরাতে। সেখানে প্রথমে পরিকল্পনা ছিল পুরোপুরি দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামেই অনুষ্ঠিত হবে আইপিএল। কিন্তু সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসছে এবারের আইপিএল কর্তৃপক্ষ আরব আমিরাত ক্রিকেট বোর্ড!

দর্শকশূন্য নয়, বরং আইপিএলে মাঠ বসে খেলা দেখার সুযোগ পেতে পারেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। সংযুক্ত আরব আমিরাতের সরকার অনুমোদন দিলে ইউএই

ক্রিকেট বোর্ড দর্শকদের দিয়ে গ্যালারির ৩০-৫০ শতাংশ পূরণ করতে আগ্রহী। শুক্রবার ইউএই সেক্রেটারি মুবাশি উসমানী ভারতের পিটিআইকে এমনটাই জানালেন।

আইপিএলের তারিখ ঘোষণার সময় চেয়ারম্যান ব্রিজেশ প্যাটেল জানিয়েছিলেন, ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে ৮ নভেম্বর আইপিএলে দর্শকদের ছাড় দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেবে সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকার। রোববার (আজ) আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে ১৩তম সংস্করণের পূর্ণাঙ্গ সূচি নির্ধারণ হতে পারে।

ফোনে পিটিআইকে উসমানী বলেন, ‘একবার বিসিসিআইয়ের কাছ থেকে (ভারত সরকারের অনুমোদনে) নিশ্চয়তা পেলে আমরা সম্পূর্ণ প্রস্তাব এবং এসওপি নিয়ে সরকারের কাছে যাব। যা আমাদের ও বিসিসিআই-এর প্রস্তুতি নিতে সাহায্য করবে।’

মাঠে বসে দর্শকরা খেলা দেখতে পারবেন কি না, এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই আমাদের মানুষরা এই মর্যাদাপূর্ণ ইভেন্টটি অনুভব করতে চায়। তবে এটি সম্পূর্ণ সরকারের সিদ্ধান্ত। এখানে বেশিরভাগ ইভেন্টের জন্য স্টেডিয়ামের ৩০ থেকে ৫০ শতাংশ দর্শক প্রবেশের অনুমিত পাওয়া যেতে পারে।

আমরা একই সংখ্যার দিকে তাকিয়ে আছি।’ তিনি সঙ্গে আরও যোগ করেন, ‘আমরা সরকারের অনুমোদনের ব্যাপারে আশাবাদী।’

সংযুক্ত আরব আমিরাতে কোভিড -১৯ এর ৬ হাজারে বেশি আক্রা’ন্ত হয়েছে। যদিও সামগ্রিক প’রিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে সেখানে। ২০২০ সালের দুবাই রাগবি সেভেন্স ইভেন্টটি নভেম্বরে আয়োজন করার কথা; কিন্তু করোনাভাইরাস কারণে ১৯৭০ থেকে চলে আসা এই টুর্নামেন্টটি প্রথমবারের মতো বাতিল করা হয়েছে।

একই সঙ্গে প্রশ্ন উঠলো আইপিএলের নিরাপত্তা নিয়েও। যদিও আরব আমিরাত ক্রিকেট বোর্ডের সেক্রেটারি উসমানি এ নিয়ে উ’দ্বেগের কিছু দেখছেন না। তিনি বলেন, ‘সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকার করোনাভাইরাস দক্ষতার সঙ্গে কমাতে সক্ষম হয়েছে। কিছু নিয়ম এবং প্রোটোকল অনুসরণ করে এখন আমরা প্রায় সাধারণ জীবনযাপন করছি। আইপিএল অনুষ্ঠিত হতে এখনও কিছু সময় বাকি রয়েছে। ওই সময় প’রিস্থিতি আরও উন্নতি হবে আশা করি।’

স্ত্রী শিশিরকে ঈদ উপহারে চমকে দিলেন সাকিব

ঈদ মানেই খুশি, ঈদ মানেই আনন্দ। তবে এই আনন্দের মাত্রা কয়েকগুণ বেড়ে যায় প্রিয়জনের কাছে বিশেষ উপহার পেলে।
এবার ঈদ উপহার দিয়ে চমক দিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক, সাবেক বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। স্ত্রী উম্মে আহমেদ

শিশিরকে এক কথায় চমকে দিয়েছেন তিনি। শিশিরকে আকর্ষণীয় মার্সিডিজ বেঞ্জ উপহার দিয়েছেন সাকিব। সাকিবের কাছ থেকে উপহার পাওয়া গাড়ির ছবি দিয়ে ভ্যারিফায়েড ফেসবুক আইডিতে শেয়ার করেছেন তার স্ত্রী শিশির।

জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক, সাবেক বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান করোনা মহামারী শুরু হওয়ার আগে থেকে সন্তান সম্ভাবা স্ত্রীকে নিয়ে

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছিলেন। সেখানেই দ্বিতীয় কন্যার বাবা হন সাকিব-শিশির দম্পতি। তবে করোনার কারণে পরে দেশে ফিরতে পারেননি সাকিব। এরই মধ্যে দুটি ঈদ মা-বাবাকে ছাড়াই নিউইয়র্কে পালন করে ফেলেছেন সাকিব।

ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব আকসুকে না জানানোর অপরাধে এক বছরের নিষেধাজ্ঞার শাস্তি ভোগ করছেন সাকিব আল হাসান। এই নিষেধাজ্ঞা শেষ হবে চলতি বছর ২৯ অক্টোবর।

হাট থেকে কিনে নয়, বাড়িতে থাকা মহিষটিই কুরবানি দেবেন মোস্তাফিজ!

করোনার প্রার্দুভাবের শুরু থেকেই সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার তেঁতুলিয়া গ্রামের নিজ বাড়িতে রয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের তারকা পেসার মোস্তাফিজুর রহমান।

করোনার সময়ে ফিটনেস ধরে রাখতে নিজ বাড়িতেই ফিজিক্যাল ট্রেনিং চালিয়ে যাচ্ছেন এই তরুণ ক্রিকেটার।

এক সপ্তাহ পর পবিত্র ঈদুল আযহা। এলাকাবাসীসহ সকল ভক্তদের সবসময়ই আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু মোস্তাফিজ।

বরাবরের মতো এবারও ঈদে কুরবানি দেবেন মোস্তাফিজ- সেটা নিশ্চিত। তবে কোন পশু কুরবানি করবেন তা এখনও নিশ্চিত হয়নি।

কয়েকদিন ধরেই কুরবানির জন্য গরু খুঁজছেন মোস্তাফিজ। তবে করোনা প’রিস্থিতিতে গরু পাওয়া না গেলে বাড়িতে থাকা মহিষটিই কুরবানি করবেন মোস্তাফিজ।

এমন তথ্য জানিয়েছেন কাটার মাস্টারখ্যাত এ পেসারের ঘনিষ্ঠ ও বাল্যবন্ধু হাফিজুর রহমান হাফিজ।

মোস্তাফিজের বাল্যবন্ধু হাফিজুর রহমান হাফিজ বলেন, ‘প্রতিবছরই মোস্তাফিজ গরু কুরবানি করে।

তবে বর্তমানে করোনার সময়ে বাড়ি থেকে বের হচ্ছে না। ফলে এখনও কুরবানির গরু কেনা হয়নি।

তবে গরু খুঁজছে এখনও। মোস্তাফিজ বলেছে, পছন্দমত গরু না মিললে বাড়িতে থাকা মহিষ কুরবানি করা হবে।’

তারকা ক্রিকেটারের মেঝো ভাই মোকলেছুর রহমান পল্টু জানান, এখনও কোরবানীর জন্য গরু কেনা হয়নি। তবে গরু খোঁজা হচ্ছে।

বাড়িতে থাকা মহিষটিই কুরবানি করা হবে কি না এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আমি জানি না। মোস্তাফিজ এখনও কিছু বলেনি।

গোল করে পিএসজিকে ফরাসি কাপ জেতালেন নেইমার

করোনাভাইরাস সংকটের মধ্যে চার মাস বিরতির পর প্রথম প্রতিযোগিতা ম্যাচে খেলতে

নেমেই শিরোপার দেখা পেল পিএসজি। নেইমারের একমাত্র গোলে দশ জনের দলে পরিণত হওয়া সেন্ত-এতিয়েনকে হারিয়ে ফরাসি কাপের শিরোপা কাপের শিরোপা ঘরে তুলেছে টমাস টুখেলের দল।

প্যারিসে শুক্রবার রাতে প্রতিযোগিতাটির ফাইনালে অতিথি সেতিয়েনকে ১-০ গোলে হারায় পিএসজি। পার্থক্য গড়ে দেওয়া একমাত্র গোলটি করে নেইমার, চতুর্দশ মিনিটে।

অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার পাস ধরে ডি-বক্সের মাঝামাঝি থেকে বাঁ পায়ের শটে গোলটি করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা ফরোয়ার্ড নেইমার।

পিএসজির ভেন্যুটিতে ৮০ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতার গ্যালারি থাকলেও স্বাস্থ্য বিধি মেনে ম্যাচটি মাঠে বসে দেখতে অনুমতি দেওয়া হয় ৫ হাজার সমর্থককে।

করোনা সংকটের মধ্যে এটাই ছিল ফ্রান্সে প্রথম কোনো প্রতিযোগিতামূলক ফুটবল ম্যাচ। খেলা শুরুর আগে খেলোয়াড়দের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ফ্রান্স প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রো। তবে এ সময় নিরাপদ দূরত্ব মানার পাশাপাশি মাস্ক পরা অবস্থায় দেখা যায় তাকে।

এই নিয়ে ১৩ বার ফরাসি কাপের শিরোপা জিতল পিএসজি। টানা চার মৌসুম জেতার পর গত মৌসুমে ফাইনালে টাইব্রেকারে রেনের কাছে হেরে গিয়েছিল দলটি।

এদিকে শিরোপা জিতলেও পিএসজিকে একটি দুঃসংবাদও শুনতে হয়েছে। ম্যাচটির প্রথমার্ধেই চোট পেয়ে মাঠ ছাড়া হন দলটির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় কিলিয়ান এমবাপে। ফরাসি এই ফরোয়ার্ড গুরুতর চোট পেয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ম্যাচের ২৭তম মিনিটে সেতিয়েনের খেলোয়াড় লোয়িচ পেরিন এমবাপেকে ফাউল করলে দু’দলের খেলোয়াড়দের হাতাহাতিতেও জড়াতে দেখা যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ কিছুক্ষণ বন্ধ রাখা হয়। বেঞ্চ থেকে উঠে আসা মার্কো ভেরাত্তিসহ হলুদ কার্ড দেখেন পিএসজির তিন জন, এতিয়েনের একজন খেলোয়াড়।

ভিএআরের সাহায্যে পেরিনকে লাল কার্ড দেখান রেফারি। ম্যাচের বাকি সময় ১০ নিয়েই খেলতে হয় অতিথিদের। আর এই সময়টা আক্রমণে না গিয়ে রক্ষণেই বেশি নজর দেয় সেতিয়েন।

এই নিয়ে চলতি মৌসুমে ফ্রান্সের দুটি শীর্ষ শিরোপা ঘরে তুললো পিএসজি। করোনা মহামারির কারণে এপ্রিলে লিগ ওয়ানের এবারের মৌসুম বাতিল করা হয়। তবে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয় পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা পিএসজিকে।

‘হাথুরু আমার অনেক বড় ক্ষতি করেছে’ !

বাংলাদেশের জাতীয় দলে খেলা ক্রিকেটার এনামুল হক বিজয় সাবেক কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের ওপর ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন।

জাতীয় দলের বাইরে থাকা এই তারকা দাবি করেছেন, হাথুরুসিংহে তার ক্যারিয়ারে অনেক বড় ক্ষতি করে দিয়ে গেছেন। বৃহস্পতিবার( ২৩ জুলাই) ইউটিউব চ্যানেল ‘নটআউট নোমান’ এর লাইভ চ্যাট শো-তে উপস্থিত ছিলেন ডানহাতি ওপেনার এনামুল। সেখানেই এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।

২৭ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার এভাবে বলেছেন, ‘ও (হাথুরুসিংহে) আমাকে অবশ্যই একটা বড় ক্ষতি করে দিয়ে গেছে। হয়তো আমি ওই সময় সাপোর্টটা পেলে আজ এখানে থাকতাম না, অনেক ভালো জায়গায় থাকতাম।’

‘এনামুল দলের জন্য খেলেন না, নিজের জন্য খেলেন।’ এই কথাটা হাথুরুসিংহেই প্রতিষ্ঠিত করে গেছেন বলে মনে করেন এনামুল।লাইভ আড্ডার স্লগ ওভার পর্বে এনামুলের কাছে একটি প্রশ্ন ছিল এরকম- ‘কোন কোচ আপনাকে হয়তো অতটা পছন্দ করতেন না বলে মনে হয়?’ এনামুল একবিন্দু না ভেবে বলে দেন হাথুরুসিংহের নাম।

বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় উনিই মিস আন্ডারস্ট্যান্ডিং করে জিনিসটা করেছে। আমার মনে হয় না আমি ও রকম ছিলাম বা ও রকম কিছু করেছি, যে জিনিসটা উনি বলে দিয়ে গেছেন। মানুষের কাছ থেকে আমাকে যা শুনতে হয় মাঝে মাঝে। কিন্তু আমি ও রকম ছিলাম না।’

যোগ করে বলেন, ‘এটা গর্বের সাথে বলতে পারি, আমি দলের জন্য খেলি, দেশের জন্য খেলি। আমি একবারও চিন্তা করি না নিজের জন্য কিছু করব।’২০১২ সালে জাতীয় দলে আবির্ভাবের পর শুরুর ক’বছর দারুণ পারফর্ম করেছেন এনামুল। নিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতেই পেয়ে যায় সেঞ্চুরি।

ক্যারিয়ারের প্রথম ২০ ওয়ানডের তিনটিতেই সেঞ্চুরি ছিল তার। কিন্তু পরে জায়গা হারান দলে। আসা যাওয়ার মাঝে থাকা এই তারকা সবশেষ জাতীয় দলে খেলেছেন গত বছর শ্রীলঙ্কা সফরে। এখন পর্যন্ত ৪টি টেস্ট, ৩৮ ওয়ানডে ও ১৩ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন এনামুল। তিন ফরম্যাটে তার রান যথাক্রমে ৭৩, ১০৫২ এবং ৩৫৫।

অবশেষে চূড়ান্ত হয়েছে আইপিএলের সময়সূচী

২০২০ সালের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের আসরটি বসবে সংযু’ক্ত আরব আমিরাতে।

বিখ্যাত ক্রিকেট ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো জানিয়েছে, দুয়ারে কড়া নাড়তে থাকা টুর্নামেন্টটি আগামী সেপ্টেম্বরের ১৯ তারিখ মাঠে গড়িয়ে ৮ নভেম্বর ফাইনালের মাধ্যমে শেষ হবে।

আর এসকল কিছুই ঠিক করে ফেলেছে বিসিসিআই, যা কেবল আনুষ্ঠানিক অনুমোদনের অ’পেক্ষা।

ভা’রতীয় সংবাদসংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া (পিটিআই) জানিয়েছে আইপিএলের সূচি চূড়ান্ত হওয়ার খবর। এরই মধ্যে অংশগ্রহণকারী দলগুলোকেও জানিয়ে দেয়া হয়েছে নতুন এই সূচি।

বিসিসিআইয়ের এক কর্মক’র্তা পিটিআইকে বলেছেন, ‘এখনও পর্যন্ত যা ঠিক করা হয়েছে যে, আইপিএল শুরু হবে ১৯ সেপ্টেম্বর (শনিবার) এবং ফাইনাল ম্যাচ হবে ৮ নভেম্বর (রোববার)। সবমিলিয়ে ৫১ দিনের আয়োজন।

যা কি না ফ্র্যাঞ্চাইজি এবং অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের জন্য বেশ ভালো হবে।’ এদিকে আইপিএলের

পরপরই অস্ট্রেলিয়া সফরে চলে যাবে ভা’রতীয় ক্রিকেট দল। ব্রিসবেনে ৩ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে দুই দলের চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ।

মাঠের খেলা শুরুর আগে ভা’রতীয় দল যেন ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকার যথেষ্ঠ সময় পায়, তাই আইপিএল বেশি লম্বা না করে ৮ নভেম্বরেই শেষ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সেই কর্মক’র্তা আরও বলেছেন, ‘অস্ট্রেলিয়া সফরে গিয়ে সে দেশের সরকারের আইন মোতাবেক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকবে ভা’রতীয় দল।

আইপিএলের ৫১ দিনের সূচির ভালো দিক হচ্ছে, এতে করে একদিনে খুব বেশি জোড়া ম্যাচ থাকবে না। আগের মতোই পাঁচটি জোড়া ম্যাচ আয়োজিত হবে।’

ধারণা করা হচ্ছে সেপ্টেম্বরের শেষদিকে হতে যাওয়া এই আইপিএলে অংশ নেয়ার জন্য আগস্টের ২০ তারিখেই অনুশীলন শুরু করে দেবে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো।

যাতে করে অন্তত চার সপ্তাহ নিজেদের মতো করে অনুশীলন ও আনুষঙ্গিক গোছানোর সময় পায় তারা।

আগামী ৪ বছরে টানা চার ক্রিকেট বিশ্বকাপ!

ক;রো;নার আগ্রাসনে এক বছর পেছানো হয়েছে টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ। ক্রিকেটপ্রেমীরা নিশ্চয়ই এমন খবরে কষ্ট পেয়েছেন। তবে তাদের জন্য সুসংবাদও আছে। আগামী ৪ বছরে টানা ৪টি ক্রিকেট বিশ্বকাপ উপভোগ করতে পারবেন তারা!

সাধারণত বিশ্বকাপ আসে ৪ বছর পর একবার। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর দেখা মেলে বিশ্ব

আসরের। ওয়ানডে বিশ্বকাপের ক্ষেত্রে সেই নিয়মই থাকছে। তবে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রতি ২ বছর পরপর অনুষ্ঠিত হবে টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ। সে হিসাবেই চলতি বছরের পর ২০২২ সালে আরেকটি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

এক বছর পিছিয়ে আগামী বছর অক্টোবর-নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ। ১৪ নভেম্বর হবে আসরের ফাইনাল। এরপর ২০২২ সালের অক্টোবর-নভেম্বরে হবে পূর্বনির্ধারিত টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ। ১৩ নভেম্বর হবে এই বিশ্বকাপের ফাইনাল।

২০২৩ সালের অক্টোবর-নভেম্বরে ভারতে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। ২৬ নভেম্বর হবে আসরের ফাইনাল ম্যাচ। এরপর ২০২৪ সালেই আবারো আয়োজিত হওয়ার কথা টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ। তবে আইসিসির ফিউচার ট্যুর প্ল্যান বা এফটিপিতে এ বিষয়ে এখনো কিছু জানানো হয়নি।

৬ লাখ টাকা চুক্তির ফুটবলার এখন ৪০০ টাকার নির্মাণশ্রমিক

ফুটবলের মাঠে লড়াকু সৈনিক। রক্ষণাভাগের বাঘা বাঘা বাধা পেরিয়ে বিপক্ষ দলের জালে বল পৌঁছালেও জীবনযু’দ্ধে টিকে থাকতে সংসারের অভাব মেটাতে কিনা করতে পারে একটি ছেলে।

বাংলাদেশ পেশাদার লীগে মাঠ কাঁপানো স্ট্রাইকার আরিফের বর্তমান জীবন যেন তারই দৃষ্টান্ত। সর্বোচ্চ লাখ টাকা বছরে পাওয়া দেশের প্রথম শ্রেণির স্বনামধন্য টিমে অংশ নেয়া স্ট্রাইকার আরিফ এখন ৪০০ টাকার যোগালি।

করোনাকালে কোনো টিম তাকে নেয়নি। যা টাকা উপার্জন করেছিল সেই টাকা বাবাকে দিয়েছিল ব্যবসা করতে।

কিন্তু লোকসান হওয়ায় পুরো পরিবার নিঃস্ব হয়ে যায়। বাবা স্ট্রোক করে দুই বার। কথায় বলে “বিপদ যখন আসে চারদিক থেকে আসে”।

২০১৯ সালে আড়াই লাখ টাকা বাৎসরকি চুক্তিতে চ্যাম্পিয়নস লীগ অগ্রণী ব্যাংক, ২০১৭-১৮ মৌসুম শেখ জামাল টিমে ৬ লাখ, ২০১৬ সাল ৩ লাখ টাকা আরামবাগ কেসি ও ২০১৫ বি লীগ বিজেএমসিতে আড়াই লাখ টাকা চুক্তিতে টিমে সুযোগ পায় আরিফ।

কিন্তু বর্তমানে কোনো টিমে ডাক না পেয়ে তার জীবনে নেমে আসে বেকারত্ব। বাবা মায়ের সংসারের অভাব মেটাতে গত দেড় মাস ধরে লোকচক্ষুর আড়ালে মাত্র ৪০০ টাকার যোগালির কাজ করছেন স্ট্রাইকার আরিফ হাওলাদার।

কিন্তু সেলিব্রেটি খেলোয়াড়ের এ আত্মত্যাগ কি আর গোপন থাকে। এক কান দু’ কান করে আরিফের যোগালি কর্মের ভিডিও চলে আসে বাংলাদেশ প্রতিদিনের এই প্রতিবেদকের হাতে।

শুক্রবার বাদ জুম্মা নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লার গাবতলীর বাসিন্দা আরিফ হাওলাদারকে শহরের গলাচিপা চেয়ারম্যান বাড়ির নির্মাণাধীন বাড়ি থেকে যোগালির কাজ করা অবস্থায় পাওয়া যায়।

ওই সময় নিজের জীবনে দুর্দশার কথা জানিয়ে লজ্জায় কাউকে বলতে পারেনি বলে কান্নায় ভে’ঙে পড়েন আরিফ।তাৎক্ষণিক আরিফকে যোগালির কাজ থেকে ফিরিয়ে আনেন বাংলাদেশ প্রতিদিনের এই প্রতিবেদক।

শুক্রবার বাদ জুম্মা আরিফ হাওলাদার বাংলাদেশ প্রতিদিনের এই প্রতিবেদককে বলেন, করোনাকালে আমি নিঃস্ব হয়ে গেছি। ৬ লাখ টাকা বাৎসরিক চুক্তি ছিল শেখ জামাল টিমে। যা টাকা উপার্জন করেছিলাম বাবাকে দিয়েছিলাম ব্যবসা করতে।

বাবা পরিবহন ব্যবসা করে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে প্রায় সব টাকা খুইয়ে ফেলেন। এরমধ্যে এই কারোনাকালে আমাকে কোনো টিম চুক্তিতে নেয়নি। ২০১৯ সালে ঢাকা চ্যাম্পিয়নস লীগে অগ্রণী ব্যাংকে বাৎসরিক ৩ লাখ টাকা চুক্তিতে খেলেছি।

কিন্তু ২০২০ সালের লীগে কোনো টিম না ডাকলে বেকার হয়ে যায় আমি। টিম না পাওয়ার কারণে আয় রোজগার বন্ধ হয়ে যায়।এর মধ্যে আমার বাবা দুই বার স্ট্রোক করেছেন। বাসা ভাড়ার জন্য বাড়িওয়ালা খারাপ ব্যবহার ও অন্যদিকে ঘরে অভাব। সব মিলিয়ে সিদ্ধান্ত নেই কারো কাছে হাত পাতব না। নেমে পড়ি যোগালি কাজে।

গত দেড় মাস যাবত কাজ করে যাচ্ছি। বাসার কেউ জানত না আমি যোগালির কাজ করছি। কোনো সময় এই কাজ করিনি বলে পা কেটে গেছে। কিন্তু আর গোপন রাখতে পারলাম না।

তবে অনেককে নানা কৌশলে নিজের সমস্যার কথা জানিয়েছিলাম। হয়ত কেউ উপলব্দি করতে পারেনি। আর লজ্জায় ভেবেছি কারো কাছে হাত পাতার চেয়ে খেটে খাওয়া ভালো। মাত্র ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছি।বিকালে আরিফের গাবতলী খানকা শরীফ বাড়িতে গেলে আরিফের যোগালি জীবনের কথা বর্ণনা করতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়ে আরিফের মা মফিজা বেগম।তিনি বলেন, সংসারে অভাব মেটাতে আমার ছেলেটা যোগালির কাজ করছে। এটা আমি প্রথমে বুঝতে পারিনি। কিন্তু ওর পায়ে কাটা ছেড়া ও শরীর ব্যথার কথা শুনে সন্দেহ হয়।

পরে এলাকার অনেক মানুষ জানায় আমার ছেলে আমাদের সংসারের অভাব মেটাতে যোগালির কাজ করছে। এই বলেই আরিফের মা হাউমাউ করে কেঁদে উঠে।আরিফ আরো জানায়, আমি বেঁ’চে থাকতে আমার বাবা মা না খেয়ে থাকবে তা হতে পারে না। আমি খেটে খেতে চাই। আমি আমার যোগ্যতা প্রমাণ করে ফুটবলে ফিরতে চাই।আরিফের বাবা শাজাহাজন হাওলাদর জানান, জাতীয় অনূর্ধ্ব ১৩, ১৪ ১৬ কিশোর থেকেই ফুটবলে সুযোগ পেয়েছিল।ওর যা পুঁজি ছিল আমি ব্যবসা করতে গিয়ে খুইয়ে ফেলেছি। আমি গর্বিত আমার সন্তান নিয়ে।

সংসারের অভাব মেটাতে যোগালির কাজ করলেও সে কারো কাছে হাত পাতেনি। সে কর্ম করে সংসারের অভাব মেটানোর চেষ্টা করছে।