মালয়েশিয়ায় যেতে চাওয়া বাংলাদেশীদের জন্য দারুন সুখবর

করোনা ভাইরাসের তাণ্ডব কিছুতা সস্থিতে মালয়েশিয়াতে। দেশটিতে ৩ টি সেক্টরে বিদেশি কর্মীদের নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। সেক্টর ৩ টি হলো নির্মাণ, বৃক্ষরোপণ ও কৃষিখাত বাদে স্থানীয়দের নিয়োগ দেওয়া হবে।

সরকার আগামীতে তিনটি খাতকে বিদেশিকর্মী নিয়োগের অনুমতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মালয়েশিয়ার উপ-মানবসম্পদমন্ত্রী আভাং হাশিম সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন।বিদেশি শ্রমিক নিয়োগ বন্ধ রয়েছে, সরকার পরের বছর নির্মাণ, কৃষি ও বৃক্ষরোপণ খাতকে বিদেশি শ্রমিক নিয়োগের অনুমতি দেওয়ার বিষয়ে বিবেচনা করবে।

বিদেশি শ্রমিকের সংখ্যা হ্রাস করতে সরকারের গৃহীত উদ্যোগগুলি সম্পর্কে ২৯ জুলাই লুবোক আন্টুর সংসদ সদস্য (এমপি) জুগাহ মুয়াংয়ের প্রশ্নের জবাবে

মন্ত্রী বলেন, ‘বিদেশি কর্মীদের উপর নির্ভরতা কমাতে সরকার এর আগে এই পদক্ষেপের কথা জানিয়েছিল। বর্তমানে মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ে নিবন্ধিত দুই মিলিয়নেরও বেশি বিদেশি কর্মচারী রয়েছেন।

এদিকে মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় (কেডিএন) জানিয়েছে, অস্থায়ী ওয়ার্কিং ভিজিট পাস (পিএলকেএস) অভিবাসী শ্রমিক হিসেবে ১ দশমিক ৫৪ মিলিয়নেরও বেশি বিদেশি কর্মী বৈধভাবে দেশটিতে নিবন্ধিত হয়ে কাজ করছে।

তবে মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসী কী পরিমাণ রয়েছে তার সঠিক পরিসংখ্যান সরকারের কাছে নেই।অভিবাসন বিভাগের অধীনে ডিটেনশন ক্যাম্পে মোট ১৫ হাজার ৫৩১ জন অবৈধ অভিবাসী আটক রয়েছেন। এই সংখ্যার মধ্যে মোট ৭৮৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের সবাইকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া ভিসার মেয়াদ বাড়ানো এবং কর্মীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন বিভাগের (জেআইএম) আওতাধীন করা হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট বিভাগ সূত্রে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *